হামলাকারীদের গ্রেফতারে বাস মালিকদের আলটিমেটাম: অন্যথায় ধর্মঘট

নাটোর অফিস ॥
নাটোরে মুখোশধারীদের হামলায় ৩ বাস মালিক আহত হওয়ার ঘটনায় জড়িতদের ২৬ এপ্রিলের মধ্যে গ্রেপ্তারের সময় বেধে দিয়েছে জেলা বাস-মিনিবাস ও মাইক্রোবাস মালিক সমিতি। অন্যথায় ২৭ এপ্রিল থেকে বাস চলাচল অনির্ষ্টিকালের জন্য বন্ধ থাকার ঘোষনা দিয়েছে তারা। নেতৃবৃন্দ হুঁশিয়ারী করে বলেছেন এই ঘটনায় দায়েরকৃত ৫ আসামীর সকলকে বেধে দেওয়া সময়ের মধ্যে গ্রেফতার করতে হবে। নইলে ২৭ এপ্রিল বুধবার সকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য অভ্যন্তরীণ রুটে বাস-মিনিবাস-মাইক্রোবাস চলাচল বন্ধের পাশিপাশি নাটোর জেলা দিয়ে দেশের সকল রুটের বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়া হবে। শনিবার বিকেল সাড়ে তিনটায় শহরের কানাইখালীস্থ এলাকায় বাস-মিনিবাস মালিক সমিতির কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই আল্টিমেটাম দিয়েছেন সমিতির নেতৃবৃন্দ। সমিতির আহ্বায়ক প্রশান্ত কুমার লক্ষন পোদ্দার সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, গত ২১ এপ্রিল রাত সাড়ে ৭টায় সমিতির কার্যালয়ে মাস্ক পরিহিত অবস্থায় কয়েকজন যুবক ঢুকে সমিতির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য বাবুল আখতার, মজিবর রহমান ও আব্দুর রশীদের উপর হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করে। এ হামলার ঘটনায় সদর থানায় একটি এজাহার দাখিল করা হয়েছে। পুলিশ এজাহারভুক্ত দুই আসামীকে গ্রেফতার করলেও বাকী তিনজন পলাতক রয়েছে। গ্রেফতারকৃত দুজনকে রিমান্ডে নিয়ে হামলার কারন ও নেপথ্যের ইন্ধনদাতাদের সনাক্ত করার দাবী জানান তিনি। তিনি আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে পলাতক তিনজনকে আইনের আওতায় আনতে ব্যর্থ হলে ২৭ এপ্রিল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্যঅভ্যন্তরীণ বাস-মিনিবাস-মাইক্রোবাস চলাচল বন্ধের পাশিপাশি নাটোর জেলা দিয়ে দেশের সকল রুটের বাস চলাচল বন্ধ করে দেয়া হবে।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত বাস মালিক মজিবর রহমান তাদের ওপর হামলার কারন সম্পর্কে বলেন, এক মাস আগে সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠান সম্পন্নের জন্য নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়। ওই নির্বাচনে কারা ভোটার তা জানার জন্য নির্বাচন কমিশনার এডভোকেট কামরুল ইসলামের নিকট খসড়া ভোটার তালিকা চেয়েছিলাম আমরা তিন বাস মালিক। ২১ এপ্রিল ইফতারের পর ওই তালিকা সমিতির কার্যালয়ে পৌছে দেবার কথা ছিলো নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে। আমরা তিন বাস মালিক যখন তালিকা নেবার জন্য অপেক্ষা করছি তখনই অজ্ঞাত কয়েকজন অফিসে ঢুকে অতর্কিত হামলা করে মারপিট করে।
ওই হামলায় আহত অপর বাস মালিক ও মামলার বাদী বাবুল আখতার বলেন, মালিক সমিতির কার্যালয়ে ঢুকে আজ অবধি কেউ কোনো বাস মালিকের উপর হামলা করার সাহস করেনি। কিন্ত এবার এমনটিই হয়েছে। আমরা আশঙ্কা করছি যে খসড়া ভোটার তালিকাটি ত্রুটিপুর্ণ হচ্ছে। এতে নির্বাচন প্রভাবিত হতে পারে। বাকী আসামীরা গ্রেফতার না হলে পুনরায় সমিতির কার্যালয়ে হামলা হতে পারে বলে তিনি শংকা প্রকাশ করেন।

পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহার কাছে এবিষয়ে জানতে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, বাস মালিকদের ওপর হামলাকারীদের দুজনকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকীদের গ্রেফতারেও অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। ঈদের আগে পরিবহন চলাচলে অচলাবস্থা সৃষ্টি না করতে সমিতির নেতৃবৃন্দকে অনুরোধ করছি।
উল্লেখ্য,২১ এপ্রিল সন্ধ্যার পর ১০/১২ জনের একদল মুখোশধারী বাস মালিক সমিতির অফিসে ঢুকে তিন বাস মালিক বাবুল আক্তার, মজিবর রহমান ও আব্দুর রশীদের ওপর চড়াও হয়ে হাতুরি দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। পরদিন এঘটনায় হামলার শিকার নাবিলা পরিবহনের মালিক ও ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি বাবুল আক্তার বাদী হয়ে নাজমুল শেখ ,বাপ্পি ওরফে হাড্ডি বাপ্পি, সৌরভ, জামিল সবুজ ও উল্লাস নামে পাঁচ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগের পর হাড্ডি বাপ্পি ও সৌরভকে পুলিশ গ্রেফতার করে ।

Spread the love
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published.