নাটোরে আঞ্চলিক ইজতেমাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা

নাটোর অফিস॥ নাটোরে আঞ্চলিক ইজতেমা(জেলা ইজতেমা) নিয়ে তাবলীগ জামাতের সা’দ পন্থী গ্রুপ ও জেলা ঈমান আকীদা সংরক্ষণ কমিটির মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এমন পরিস্থিতিতেই আগামীকাল বৃহষ্পতিবার বাদ জোহর থেকে নাটোর-রাজশাহী মহাসড়কের পাশে মল্লিকহাটি এলাকায় শুরু হচ্ছে একদিনের ইজতেমা যা পরদিন শুক্রবার বাদ জুম্মা আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে।

এদিকে ইজতেমা বন্ধে বুধবার দুপুরে নাটোর প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছে জেলা ঈমান আকীদা সংরক্ষণ কমিটি। মানববন্ধন শেষে সংগঠনের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি দেন কমিটির নেতারা।

জেলা ঈমান আকীদা সংরক্ষণ কমিটির সভাপতি হাফেজ মাওলানা লুৎফর রহমান সাংবাদিকদের জানান, বিশ্বব্যপী তাবলীগ জামাতের অভ্যন্তরীণ সংকট ও বিভাজনের অংশ হিসেবে গত ০১/১২/২০১৮ তারিখে টঙ্গীর ময়দানে আলেমদের উপর হামলা ও হত্যাকান্ড চালায় সা’দ পন্থীরা। তবুও ধর্মীয় সম্প্রীতির স্বার্থে সরকার দুই পক্ষকে নিয়েই টঙ্গীতে ৬৪ জেলার ইজতেমা করিয়েছেন। ফলে আমরা সিদ্ধান্ত নিই নতুন করে জেলা ইজতেমা না করার। অথচ কাকরাইল মার্কাজের অনুমতি ব্যতীত সা’দ পন্থীরা ৪ ও ৫ জুন নাটোরে ইজতেমা করার সিদ্ধান্ত নেয়, যার প্রস্ততি এখন শেষ পর্যায়ে। এতে পুরো জেলার সংখ্যাগরিষ্ঠ তাবলীগ সাথী ও ওলামায়ে কেরামদের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া শুরু হয়েছে। বিতর্কিত এ ইজতেমা বাতিল করতে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

অপরদিকে সা’দ পন্থী তাবলীগ সাথীদের দাবী, তারা উভয় পক্ষের সম্মতিতেই ইজতেমা আয়োজন করছেন। গত ৩১শে মার্চ দুপক্ষের ৫ জন করে প্রতিনিধি নিয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্যের উপস্থিতিতে সিদ্ধান্ত হয় ১ দিনের ইজতেমা আয়োজনের। ওই সভায় ঈমান আকীদা সংরক্ষণ কমিটির নেতা মাওলানা আবুল কালাম আজাদও উপস্থিত ছিলেন। তবুও বুধবার মানববন্ধন করে তারা সে সিদ্ধান্ত লঙ্ঘন করেছেন।

ইজতেমা আয়োজক কমিটির প্রধান হাজী শরীয়তুল্লাহ জানান, ঈমান আকীদা সংরক্ষণ কমিটিসহ সমমনা বেশ কয়েকটি সংগঠনের সম্মিলিত সিদ্ধান্তেই এক দিনের ইজতেমা আয়োজন করা হয়েছে যেখানে প্রায় লক্ষাধিক মুসল্লী অংশগ্রহন করবেন। তবুও আবার কেন তারা ইজতেমা বন্ধের দাবী জানাচ্ছে তা বোধগাম্য নয়।

জেলা পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুন বলেন, তাবলীগ জামাতের দুপক্ষের সম্মতিতেই ইজতেমা আয়োজন হচ্ছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুরো ইজতেমা পর্যবেক্ষণে রাখা হচ্ছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published.