নাটোরের প্রথম পথ বইমলো নিয়ে যা বললেন গুণীজনরা

নাটোর অফিস॥ নাটোরের স্থানীয় পত্রিকা দৈনিক প্রান্তজন আয়োজিত একুশের প্রথম পথ বইমেলার ভূয়সী প্রশংসা করেছেন পাঠক-গুণীজনরা। এমন আয়োজনের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার আহ্বান ছিল তাদের কন্ঠে।
নাটোর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম রমজান জানান, নাটোরে একসাথে এতো লেখকের মিলনমেলা ও তাদের সৃষ্টি সমাহার তিনি কোনদিন দেখেননি।
জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও দৈনিক উত্তরবঙ্গ বার্তার সম্পাদক মালেক শেখ বলেন, পথ বইমেলাটি আমাদের জন্য গর্বের বিষয়। সৃষ্টিশীলতাকে সম্মান জানানোর এ আয়োজন নাটোরের ইতিহাসে সত্যিই ইতিহাস হয়ে থাকবে।
নাটোর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও বিশিষ্ট কলামিস্ট রেজাউল করিম খান বলেন, ব্যতিক্রমী পথ বইমেলার আয়োজন তরুণ লেখকদের উৎসাহিত করবে মানসম্পন্ন লেখার জন্য। আগামীতে এ আয়োজন অব্যাহত রাখারও আহ্বান জানান তিনি।
দেশবরেণ্য চিত্রশিল্পি ও লেখক এম আসলাম লিটন বলেন, ঐতিহ্যের নাটোরে এ ধরনের আয়োজনে আমরা গর্বিত। নাটোরের লেখকদের দেয়া বিরল এ সম্মান আমরা সাদরে গ্রহন করছি।
বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মুজিবুল হক নবী বলেন, এই আয়োজন চেনাজানা অনেকের মিলন মেলা। যা অভিভূত করছে সকলকে। এ এক অন্যরকমের অনুভূতি।
লেখক খালিদ বিন জালাল বাচ্চু বলেন, এ আয়োজন নিঃসন্দেহে একটি ভাল উদ্যোগ। আমাদের সকলকে আনন্দ দিচ্ছে। একত্রে এত লেখকের বই দেখে ভাল লাগছে। যারা রয়েছেন তাদের সাথে পরিচিত হওয়া এবং তাদের লেখা সম্পর্কে জানার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। পাঠকদের সমৃদ্ধ হওয়ার এমন সুযোগ কখনও হয়নি। এজন্য আয়োজন প্রতিষ্ঠানকে সাধুবাদ জানাতে হচ্ছে।
ছড়াকার কামাল খা বলেন, এই উদ্যোগ প্রথমবারের মতো নাটোরের লেখক-কবি-সাহিত্যিকদের বইগুলো একত্রিত হওয়ার সুযোগ সৃষ্টি করেছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published.