নাটোরে হয়ে গেল সমকাল-বিএফএফ জাতীয় বিজ্ঞান বির্তক উৎসব

নাটোর অফিস ॥
বিজ্ঞান মানেই যুক্তি,বিজ্ঞানে মুক্তি’- এই শ্লোগান নিয়ে শুক্রবার নাটোরে সমকাল-বিএফএফ জাতীয় বিজ্ঞান বির্তক উৎসব-২০২১ অনুষ্ঠিত হয়। নববিধান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের চারটি শ্রেণী কক্ষে স্থানীয় ৮ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২৪ জন প্রতিযোগি বিতর্কে অংশ নেয়। জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে সমকাল-বিএফএফ জাতীয় বিজ্ঞান বির্তক উৎসব-২০২১ এর যুক্তি তর্ক লড়াইয়ের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন জেলা শিক্ষা অফিসার রমজান আলী আকন্দ। যুক্তি তর্কের লড়াইয়ে অংশ নেয়া ৮ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হলো নাটোর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, নাটোর সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়, নববিধান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, নাটোর কালেক্টরেট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, নাটোর পুলিশ লাইনস স্কুল এন্ড কলেজ, নলডাঙ্গা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, ্নলতা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও শের-ই -বাংলা উচ্চ বিদ্যালয়।
প্রতিযোগীতায় বিজয়ী হয় নাটোর সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয় এবং রানার আপ হয় নলডাঙ্গা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়। প্রাণবন্ত এই বিতর্ক প্রতিযোগীতার মডারেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন নববিধান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিমান গোবিন্দ সরকার। যুক্তি তর্কের লড়াইয়ে অংশ নেয় নাটোর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাদিয়া ইসলাম রাত্রি,মাশিয়া ইসলাম দিঘী ও সুমাইয়া আক্তার মিম, সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের সৌমিক কুমার দাস, সরকার মোঃ ওয়াসী তাহমিদ ও মোঃ মাহফুজ আহমেদ, নববিধান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের তারমিহিম কবির জ্যোতি, জান্নাতুল ফেরদৌস ও উম্মে হাবিবা। নাটোর কালেক্টরেট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের মিফতাহুল জান্নাহ ফারিয়া, নাইমুর রহমান ও ফাহিম ফয়সাল। নাটোর পুলিশ লাইনস স্কুল এন্ড কলেজের আকিজ আহমেদ জয়, মোঃ আবু হুরাইয়া রজব ও মোঃ জহিরুল ইসলাম শিমুল। নলডাঙ্গা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের নুর আয়শা, আফরিন সুলতানা ও সামিয়া আফরিন। বনলতা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মালা খাতুন, সুরাইয়া আক্তার অথৈ ও মোছাঃ উম্মে হানি এবং শের-ই -বাংলা উচ্চ বিদ্যালয়ের মোঃ অপু ইসলাম, মোছাঃ সুমাইয়া খাতুন ও মোছাঃ আখি খাতুন। বির্তক প্রতিযোগীতায় সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন নববিধান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হাফিজা খানম জেসমিন ও সমকাল সুহৃদ সমাবেশ নাটোরের সদস্য সচিব মাহতাব আলী।
বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন প্রফেসর অলোক কুমার মৈত্র, খলিশাডাঙ্গা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আনম ফরিদুজ্জামান, পাবনার হরিপুর কলেজের প্রভাষক আশরাফুল ইসলাম, নাটোর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তারিক জুবায়ের, জেলা শিক্ষা অফিসের গবেষনা কর্মকর্তা মোঃ তারিকুল ইসলাম, আহমেদপুর আজম আলী কলেজের প্রভাষক বদরে মুনির সানি, খলিশাডাঙ্গা ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক আতিকুর রহমান মৃধা, মাহবুবুর রহমান, বনপাড়া সেন্ট যোসেফস স্কুল এন্ড কলেজের প্রভাষক মোঃ আসাদুজ্জামান ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি সাহিত্যের শিক্ষার্থী নিশাত তামান্না।
“ বিজ্ঞান ও গবেষনার প্রতি অবহেলাই তৃতীয় বিশ্বের পশ্চাৎপদতার মুল কারন ” এই বিষয় নিয়ে শুরু হয় ক্ষুদে তার্কিকদের যুক্তি তর্ক। ক্ষুদে তার্কিকরা এই বিষয়ে পক্ষে-বিপক্ষে তাদের নানা যুক্তি তুলে ধরেন। সঙ্গে চলে পক্ষে-বিপক্ষে জোড়ালো তর্ক-বিতর্ক। তিন ধাপের দ্বিতীয় ধাপে “ শিক্ষক নয়,শিক্ষা ব্যবস্থার ত্রুটির কারণেই বিজ্ঞানের শিক্ষার্থী কমছে” এবং শেষ ধাপে “ কুসংস্কার দুরীকরণেই বিজ্ঞানের চেয়ে সামাজিক আন্দোলন জরুরী” বিষয় নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় বিতর্ক।
সমপানী ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ শাহরিয়াজ। তিনি বলেন, উন্নত রাষ্ট্র গঠনে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির বিকল্প নেই। বিজ্ঞান বিষয়ক বিতর্ক শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিজ্ঞানের প্রতি গবেষণাধর্মী, উদ্ভাবনী ও যুক্তিবাদী মানসিকতা গড়ে তোলে। বিতর্ক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে তারা যুক্তিতর্ক আয়ত্ত করে যোগ্য ও আত্মনির্ভরশীল হয়ে উঠবে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা বলেন, বিজ্ঞানকে শিক্ষার্থীদের কাছে সহজ ও সহজলভ্য করে তুলতে সমকাল-বিএফএফ যে উদ্যোগ নিয়েছে তা সতিই প্রশংসার দাবী রাখে। এধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করায় তিনি সমকালকে ধন্যবাদ জানান তিনি।
অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ৭৫ এ বঙ্গবন্ধুর হত্যার প্রতিবাদ করে কারাভোগকারী গুরুদাসপুরের তিন বন্ধু প্রবীর কুমার বর্মন, নির্মল কর্মকার ,অশোক কুমার পাল,গুরুদাসপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি জাহিদুল ইসলাম, সমকাল নাটোর প্রতিনিধি নবীউর রহমান পিপলু, বড়াইগ্রাম প্রতিনিধি আশরাফুল ইসলাম, লালপুর প্রতিনিধি সহিদুল ইসলাম, ইউনাইটেড প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক বুলবুল আহমেদ, ইউনাইটেড প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক মেহেদী হাসান বাবু, সাংবাদিক খন্দকার মাহবুব প্রমুখ।
সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ফিরোজ আহমেদ, নাটোর সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক রনজিৎ কুমার দেবনাথ, নববিধান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সনজিৎ কুমার প্রামানিক, কালেক্টরেট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের সহকারী শিক্ষক (সামাজিক বিজ্ঞান) মাহমুদা খাতুন ,নলডাঙ্গা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোছাঃ তাহমিনা খাতুন,বনলতা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বিভাষ রঞ্জন দাস ও শের-ই বাংলা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক শিবনাথ ঘোষ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন ।
সমাপনী ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানের শুরুতে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক সমকাল সুহৃদ সমাবেশের পক্ষ থেকে ৭৫ এ সপরিবারে বঙ্গবন্ধুর হত্যার প্রতিবাদ করে কারাভোগকারী গুরুদাসপুরের তিন বন্ধু প্রবীর কুমার বর্মন, নির্মল কর্মকার ও অশোক কুমার পালকে সংবর্ধনা সহ উত্তরিয় ও সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। এসময় সমকাল সুহৃদের পক্ষে থেকে প্রধান অতিথি তাদের হাতে শুভেচ্ছা উপহার তুলে দেন

Spread the love
  • 37
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    37
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *