গুরুদাসপুরে পুলিশ প্রহরায় নারী মরদেহের সৎকার

নাটোর অফিস ॥
নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার খলিফাপাড়া এলাকার বলাই চন্দ্র সূত্রধরের স্ত্রী জয়ন্তী রাণীর (৫০) মরদেহ অবশেষে পুলিশ প্রহরায় সৎকার করা হয়েছে। রোববার দুপুরে কালাকান্তনগর মহাসশ্মানে তার মরদেহের সৎকার করে স্থানীয়রা।
জানা যায়, জয়ন্তী রাণী অসুস্থ্য স্বামীর চিকিৎসা এবং দুই ছেলে অমিত ও মুকুলের পড়া-লেখার খরচ যোগাতে গিয়ে মহাজনদের নিকট থেকে চড়াসুদে অনেক টাকা ঋণ গ্রহণ করেন। পরে তার শেষ সম্বল চার শতক ভিটেমাটি বিক্রি করে ১০ লাখ টাকায় বিক্রি করে মহাজনদের দিয়েও ঋণ শোধ হয়নি। পরে আতœরক্ষায় স্ব-পরিবারে ঢাকায় পালিয়ে যান তারা। কিন্তু সেখানে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে দেড় মাস আগে বাড়ি ফিরে আসেন। বাড়ি ফিরলে পাওনাদার আলেয়া সরদাগর, মান্নান সওদাগর, বুলু মিয়া, অরুনা,ছাবিনা, ফাহিমা, আলমাসসহ অনেকে টাকার জন্য চাপ দিতে থাকেন। এ অবস্থায় নানা গঞ্জনা, হুমকি-ধামকির চাপে রোববার সকালে জয়ন্ত্রী রাণী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে নিজ বাড়িতে মারা যান।
পরিবার সূত্রে জানা যায়, জয়ন্তীর মরদেহ সৎকারে বাধা দেয় সুদী মহাজনরা। অবশেষে খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুলিশ প্রহড়ায় তার লাশের সৎকার করা হয়।
ইউএনও তমাল হোসেন বলেন, খবর পেয়ে জয়ন্তীর মরদেহ সৎকারের ব্যবস্থা করা হয়। এ বিষয়ে খোজ নিয়ে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Spread the love
  • 54
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    54
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *