নাটেরে পূজা উদযাপন পরিষদ নেতৃবৃন্দঃ নিরাপত্তা নয়, সংসদে প্রতিনিধিত্ব চাই।

নাটোর: জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে ও পরে নিয়ম করে দেশে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষের উপর হামলার ঘটনা ঘটে। অথচ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ভোট নিয়েই এ দেশে সরকার গঠন করে রাজনৈতিক দলগুলো। দেশে স্বাধীনতার স্বপক্ষের সরকার থাকলেও বন্ধ নেই সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর অত্যাচার নির্যাতন। তাই এবার আর নিরাপত্তা নয়, জাতীয় সংসদে চাই প্রতিনিধিত্ব। নিজেদের অধিকার আমরা নিজেরাই আদায় করবো।

‘অসাম্প্রদায়িক চেতনায় সম অধিকার প্রতিষ্ঠা’ শ্লোগানে নাটোরে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের রাজশাহী বিভাগীয় প্রতিনিধি সম্মেলন এসব কথা বলেছেন সংখ্যালঘু নেতারা। শুক্রবার রাণী ভবানী রাজবাড়ী চত্বরে দিনব্যাপী  অনুষ্ঠিত এই সভায় পূজা উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ ছাড়াও রাজশাহী বিভাগের আট জেলার প্রতিনিধিরা অংশগ্রহন করেন।

সংখ্যালঘু নেতারা বলেন,’ সরকারের কাছে নিজেদের নিরাপত্তা চাই না, চাই সংসদে প্রতিনিধিত্বের সুযোগ। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে সংসদে প্রতিনিধিত্বের জন্য পূজা উদযাপন পরিষদের অনেক যোগ্য নেতা আছে। তাদের মনোনয়ন দিলে সকলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করবে। সংখ্যালঘুদের উপর হামলা ও নির্যাতনকারী এবং তাদের পৃষ্ঠপোষকদের প্রার্থী করলে তাদের ভোট দেবেন না কেউ। এজন্য আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেই পরিষদের অন্তত ৩০ জন নেতাকে সংসদে প্রতিনিধিত্বের সুযোগ দিতে হবে।’

তবে পূজা উদযাপন পরিষদের নেতারা কোন দলের প্রার্থী হিসেবে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ চান, তা স্পষ্ট করেননি।

নাটোর জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ও নাটোর পৌরসভার মেয়র উমা চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন সংসদে রাজশাহী বিভাগের একমাত্র সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি ও নওগাঁ-১ (নিয়ামতপুর-পোরশা ও সাপাহার)সংসদ সদস্য সাধন চন্দ্র মজুমদার। এ সময় অনান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন পূজা উদযাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মিলন কান্তি দত্ত, সাধারণ সম্পাদক নির্মল চ্যাটার্জি ও যুগ্ম সম্পাদক অধ্যাপক চন্দন পোদ্দার, নাটোর জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট খগেন্দ্র নাথ রায়সহ রাজশাহী বিভাগের আটটি জেলার পরিষদ নেতৃবৃন্দ প্রতিনিধি বক্তব্য রাখেন।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published.