নাটোরে মেয়ে-জামাইদের বিরুদ্ধে শ্বাশুরী হত্যার অভিযোগ, লাশ উত্তোলন!

নাটোর: নাটোরে মৃত্যুর পাঁচ মাস পর কবর থেকে জেলেখা (৮০) নামে এক বৃদ্ধার লাশ উত্তোলন করেছে পুলিশ। আদালতের নির্দেশে সদর থানার পুলিশ সোমবার সকালে ম্যাজিষ্ট্রেট আসলাম চৌধুরীর উপস্থিতিতে শহরতলির বনবেলঘরিয়া বাইপাস এলাকার কবরস্থান থেকে ওই বৃদ্ধার লাশ উত্তোলন করে। পরে ময়না তদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম জানান, গত ১৯ ফেব্রয়ারী নাটোর সদর উপজেলার বনবেলঘড়িয়া এলাকার আজিম মোল্লার মেয়ে ও মৃত আব্দুল বারেক সরদারের স্ত্রী জুলেখা বিবি মারা যায়। পরে ওই দিনই বনবেলঘড়িয়া বাইপাস গোরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়। এদিকে নিহত জুলেখা বেওয়ার ছেলে কাচু সরদার তার মা জুলেখা বিবিকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে দাবী করে তার তিন বোন নিগার সুলতানা,নুরুন্নাহার নিরু,ফাহিমা আক্তার মিঠু ও ভগ্নিপতি ইসমাইল হোসেনসহ ৯ জনকে অভিযুক্ত করে নাটোরের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর আদালতের বিচারক মামলাটি নাটোর সদর থানায় তদন্ত করার নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশের পর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সদর থানার ওসি (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম তদন্তের স্বার্থে কবর থেকে লাশ উত্তোলনের জন্য অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সায়দুজ্জামান বরাবর আবেদন করেন। আবেদনের প্রেক্ষিতে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সায়দুজ্জামান লাশ উত্তোলনের নির্দেশ দেন। আদালতের আদেশের পর সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সদর উপজেলার বনবেলঘড়িয়া বাইপাস গোরস্থান থেকে লাশ উত্তোলন করে ময়না তদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়।
তদন্তকারী কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম বৃদ্ধার লাশ উত্তোলনের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ময়না তদন্ত শেষে লাশ পুনরায় কবরস্থ করা হয়েছে। ময়না তদন্তের প্রতিবেদন অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published.