নাটোরে প্রেমিকের সাথে পালানোর টাকা যোগাতে শিশু বোনকে খুন

নাটোর অফিস॥ নাটোরের সিংড়ায় দু’আনি ওজনের সোনার গহনার জন্য ফুফাতো বোন সুরজিনার (১৯) হাতে খুন হয়েছে দশ বছরের শিশু জুই। নিহত জুই সিংড়া উপজেলার ছাতারদিঘী ইউনিয়নের রামনগর গ্রামের হারেজ আলীর মেয়ে। সে পাচুপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেনীর ছাত্রী।

পুলিশ বলছে, প্রেমিকের সাথে পালিয়ে যাবার টাকার অভাবে নিজের মামাত বোন জুঁইকে হত্যা করে সুরজিনা খাতুন। জুইকে খুন করে তার কানে থাকা দুই আনা ওজনের কানের রিং ও একটি নাক ফুল খুলে নেয় সুরজিনা। পরে বাড়ির অদূরে একটি বিল থেকে বৃহস্পতিবার রাতে জুইয়ের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।
জুইকে পানিতে চুবিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছে পুলিশ।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রামনগর গ্রামের প্রতিবেশী মামাত বোন জুঁইকে ফুসলিয়ে বাকাই বিলে গোবর কুড়াতে নিয়ে যায় সারজিনা। দুপুরে জুই এর বাবা হারেজ তার স্ত্রীকে জুঁই কোথায় বললে সে জানায় সারজিনার সাথে বের হয়ে গেছে। জুই এর মা সারজিনার বাড়িতে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন তারা কেউ বাড়িতে ফিরেনি। পরে তারা বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করতে থাকেন। এসময় খবর পান সারজিনাকে ভ্যানে করে একা যেতে দেখে স্থানীয়রা। পরে নিহতের বাবাসহ প্রতিবেশীরা বিলে খোঁজ করতে গিয়ে মেয়ের গামছা দেখতে পান। সেখানেই তার লাশ খুজে পায় স্বজনরা।

মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই পলাশ জানান, লাশ উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে হত্যার কথা স্বীকার করেছে সুরজিনা। প্রেমিকের সাথে পালিয়ে যাবার অর্থ জোগাড় করার কারনে হত্যা করেছে বলে কথা স্বীকার করেছে সে।

সিংড়া থানার ওসি মনিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, হত্যাকারী ও নিহতের পরিবার সকলেই দরিদ্র। এঘটনায় যারা জড়িত,তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। ঘটনার কথিত প্রেমিককে খোঁজা হচ্ছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published.