নাটোরে ৩ শিশু-নারী-গৃহবধূ নিখোঁজে উদ্বিগ্ন খ্রিস্টান সম্প্রদায়

নাটোর অফিস॥ নাটোরের বড়াইগ্রামের দুই খ্রিস্টান পরিবারের এক শিশুসহ তিন জন নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় স্থানীয় খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের মধ্যে উদ্বিগ্ন ও উৎকন্ঠা দেখা দিয়েছে। উপজেলার মাঝগাঁও ইউনিয়নের বাহিমালি গ্রামের এক কণ্যা শিশুসহ গৃহবধূ ১৮ দিন ও বনপাড়া পৌর শহরের কালিকাপুর মহল্লার এসএসসি পরীক্ষার্থী এক কিশোরী ৭ দিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন। তাদের উদ্ধারে থানা পুলিশের শরণাপন্ন হলেও এতে পুলিশের কোন তৎপরতা দেখতে না পেয়ে সংশ্লিষ্ট পরিবার ও স্থানীয় খ্রিস্টান নেতৃবৃন্দ র‌্যাবের সহযোগিতা চেয়েছেন। গত ৯ মার্চ সকাল পৌনে ১০টার দিকে শ্রাবন্তি পিউরি নামে আড়াই বছর বয়সী শিশু কণ্যাসহ গৃহবধূ রঞ্জিতা দাস (২৭) আকষ্মিকভাবে নিখোঁজ হন। রঞ্জিতা বাহিমালী গ্রামের অমল পিউরির স্ত্রী ও শ্রাবন্তি তাদের ছোট সন্তান। এ ঘটনার ১১ দিন পরই গত ২১ মার্চ দুপুর ১২টার দিকে আকষ্মিকভাবে নিখোঁজ হন কালিকাপুর মহল্লার পাক্রাশিউশ রোজারিও’র মেয়ে শিউলী রোজারিও (১৭)। সে এবারে সেন্ট যোশেফস স্কুল এন্ড কলেজ থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছে।
রঞ্জিতা নিখোঁজ হওয়ার দুই দিন পর স্বামী অমল পিউরী ৪ জনকে অভিযুক্ত করে বড়াইগ্রাম থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিলিপ কুমার দাস অভিযোগটি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বনপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলামকে দায়িত্ব প্রদান করেন। কিন্তু দীর্ঘদিনেও শিশু কণ্যাসহ গৃহবধূ রঞ্জিতাকে উদ্ধারে কোন অগ্রগতি বা এ ব্যাপারে পুলিশের তৎপরতা সন্তোষজনক না হওয়ায় পরিবার, গ্রামবাসী ও স্থানীয় খ্রিস্টান নেতৃবৃন্দ র‌্যাবের সহযোগিতা চেয়েছেন।
অপরদিকে এসএসসি পরীক্ষার্থী শিউলীকে উদ্ধারের জন্য শিউলীর পরিবারের সদস্যরা রবিবার সকালে নাটোর র‌্যাব-৫ সিপিসি-২ কার্যালয়ে উপস্থিত হয়ে লিখিতভাবে আবেদন জানিয়ে গেছে।
বনপাড়া খ্রিস্টান ধর্মপল্লীর সহ-সভাপতি ক্লামেন্ট কস্তা জানান, শিশুকণ্যা সহ তিন জন নিখোঁজের ঘটনাটি সত্যিই উদ্বেগ হওয়ার মতো ঘটনা। তিনি দ্রুত নিখোঁজদের উদ্ধারের জন্য র‌্যাব-৫ এর কাছে সর্বাতœক সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।
বনপাড়া পৌরসভার সাবেক মেয়র আগস্টিন কস্তা জানান, শিশুসহ গৃহবধূ উদ্ধার না হতেই আরেকটি নিখোঁজ স্থানীয় খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের মধ্যে উৎকন্ঠা তৈরী করেছে। তিনি দ্রুত নিখোঁজদের উদ্ধার করে এই উৎকন্ঠা নিরসন করতে সংশ্লিষ্ট আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কাছে আবেদন জানান।
বড়াইগ্রাম কেন্দ্রীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি অমর ডি কস্তা একইভাবে নিখোঁজদের দ্রুত উদ্ধারে ডিবি, থানা পুলিশ ও র‌্যাবের আন্তরিক ভূমিকা প্রত্যাশা করেন।
বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিলিপ কুমার দাস জানান, নিখোঁজদের সন্ধান পেতে পুলিশ সাধ্যমতো চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published.