সিংড়ায় প্রধানমন্ত্রীর পুরস্কার প্রাপ্ত বাগান ও বনায়নের গাছ কাটলনে কাউন্সিলর!

প্রতিনিধি, সিংড়া॥
নাটোরের সিংড়া উপজেলার জামতলী এলাকায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক বৃক্ষ রোপনে জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত একটি বাগানের ৮টি ইউক্যালিপটাস ও নাটোর-বগুড়া মহাসড়কের বাশের ব্রীজ এলাকা থেকে সরকারি সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির আরো ৬টি গাছ জোর করে কেটে নেয়া হয়েছে। রোববার সকাল সাড়ে ১১টায় সিংড়া পৌরসভার আ’লীগ সমর্থিত ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিজানুর রহমান এই গাছগুলো কেটে নিয়ে যান। এবিষয়ে সিংড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন বৃক্ষ রোপনে জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত ব্যক্তি ওই বাগানের মালিক আব্দুল বারী ডাবলু।
অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালে বৃক্ষ রোপনে জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত ব্যক্তি আব্দুল বারী ডাবলু উপজেলার জামতলী এলাকায় মৌজাগাড়ীর ৮ একর ভূমিতে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষরোপন করে পরিচর্যা করিয়া আসিতেছেন। রোববার সকালে হঠাৎ সিংড়া পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিজানুর রহমান নেতৃত্বে ওই বাগানের ৮টি ইউক্যালিপটাস গাছ জোর করে কেটে নেয় হয়। পরে নাটোর-বগুড়া মহাসড়কের বাশের ব্রীজ এলাকা থেকে সরকারি সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির আরো ৬টি গাছ কেটে নসিমনে উঠিয়ে নিয়ে যান কাউন্সিলের লোকজন। এসময় গাছ কাটতে নিষেধ করায় সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির উপকারভোগী সদস্য মো. আয়চান আলী দেয়া হয়েছে হুমকি।
থানায় অভিযোগ কারী আব্দুল বারী ডাবলু বলেন, গাছ কাটতে নিষেধ করায় তাকেও হুমকি দেয়া হয়েছে। আর কাউন্সিলর মিজানুর রহমান অনেক ক্ষমতাধর বলে জানান তিনি।
অভিযুক্ত কাউন্সির মিজানুর রহমান মোবাইল ফোনে (০১৭১৪-১৭৯৫০৫) বলেন, একটি বাঁধ রক্ষার জন্য গাছগুলো কেটে নেয়া হয়েছে। আর পরে গাছগুলো ব্যক্তি মালিকানাধীন জানতে পেরে আমি গাছের মালিকের কাছে ক্ষমাও চেয়েছি। তারপরও এজন্য আমি ক্ষতিপূরণ দিতে প্রস্তুত রয়েছি।
সিংড়া উপজেলা বন কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান জানান, তার অধীনে জামতলী-বাশের ব্রীজ এলাকার সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির ৬টি গাছ কেটে নেয়া হয়েছে। এবিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।
সিংড়া থানার ওসি তদন্ত নিয়ামুল আলম বলেন, পৌর কাউন্সিলর মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে গাছ কাটার বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
উল্লেখ্য সম্প্রতি জমি সংক্রন্ত বিরোধের জের ধরে সিংড়া থানা সামনে শেরকোল ইউনিয়নের বুলেট আলী নামের এক ইউপি সদস্যের মাথায় প্রকাশ্যে পিস্তল ঠেকিয়েও প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে আলোচনায় আসেন এই পৌর কাউন্সিলর মিজানুর রহমান।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published.