নাটোরে যৌতুকের না পেয়ে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করলো স্বামী!

নাটোর:যৌতুকের জন্য নাটোরের গুরুদাসপুরে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে পাষণ্ড স্বামী। মারাত্নকভাবে জখম ওই গৃহবধূর অবস্থার অবনতি হলে শনিবার সন্ধ্যায়  রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যুর হয় বলে জানিয়েছে স্বজনরা। এ ঘটনায় ঘাতকের পিতা হাবিল মোল্লাকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহত ওই গৃহবধূর নাম রিনা বেগম(২২)। সে গুরুদাসপুর উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের আগ-পুরুলিয়া গ্রামের রনি মোল্লার স্ত্রী এবং সদর উপজেলার শিব দুর্গা এলাকার মফিজ সর্দারের মেয়ে।
রিনা বেগম এক সন্তানের জননী।

নিহত রিনার পিতা মফিজ সরদার জানান, ৫ বছর আগে রনির সাথে রিনার বিয়ে হয়। বিয়ের সময় যৌতুক দেয়ার কোনো কথা না থাকলেও প্রায়ই  টাকার জন্য রিনাকে নির্যাতন করতো রনি। মেয়েকে শারীরিক নির্যাতন থেকে বাঁচাতে এক লক্ষ টাকা রনিকে দেয়া হয়। শনিবার সকালে রনি আবারও যৌতুকের জন্য রিনাকে চাপ সৃষ্টি করলে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে রিনা রনিকে টাকা এনে দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে উত্তেজিত হয়ে রনি ধারালো অস্ত্র দিয়ে রিনাকে আক্রমণ করে। গুরুতর জখম অবস্থায় প্রতিবেশীরা রিনাকে উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সন্ধ্যার কিছু আগে অবস্থার অবনতি হওয়ায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ নেয়ার পথে রিনার মৃত্যু হয়।

রিনার পিতা জানান, এ ঘটনায় হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন তিনি।

গুরুদাসপুর থানার ওসি সেলিম রেজা জানান, ঘটনার পর থেকে রনি পলাতক রয়েছে। রনির খোঁজ পেতে তার বাবা হাবিল মোল্লাকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া রনিকে আটকের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 

(ছবি: প্রতীকি)

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published.