নাটোরের বড়াইগ্রামে দফতরীর লালসার শিকার ৪র্থ শ্রেণীর শিশু!

নাটোর: নাটোরের বড়াইগ্রামে দফতরী কাম নৈশ প্রহরীর বিরুদ্ধে ৪র্থ শ্রেণীর এক শিশু শিক্ষার্থীকে (১০) ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় উপযুক্ত বিচারসহ অভিযুক্ত নৈশ প্রহরীর বহিষ্কারের দাবীতে শিশুটির সহপাঠী, অভিভাবক ও এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল করেছে। বুধবার সকালে উপজেলার জোনাইল ইউনিয়নের কুশমাইল-সংগ্রামপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয়রা জানান, বুধবার সকাল ৯টার দিকে অর্ধ-বার্ষিক পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য ঐ শিশুটি বিদ্যালয়ে আসে। এ সময় দফতরী কুশমাইল গ্রামের আব্দুল হালিমের ছেলে মনির হোসেন (৩২) তাকে বিদ্যালয়ের দোতলার কক্ষগুলো ঝাড়ু দিতে বলে। ঝাড়ু দেয়ার জন্য শিশুটি দোতলায় গেলে মনির হোসেন সেখানে গিয়ে পেছন দিক থেকে তাকে জাপটে ধরে। পরে শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়াসহ শিশুটিকে বিবস্ত্র করে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় সে কান্নাকাটি শুরু করলে অন্য কয়েকজন শিক্ষার্থী এগিয়ে আসায় মনির তাকে ছেড়ে দেয়।পরে স্থানীয়রা বিষয়টি জানতে পেরে এগিয়ে এলে লম্পট মনির হোসেন বিদ্যালয় থেকে পালিয়ে যায়। এদিকে, দুপুরে পরীক্ষা শেষে এলাকাবাসী, অভিভাবক ও শিশুটির সহপাঠীরা মনির হোসেনের বিচারের দাবীতে বিদ্যালয় আঙ্গিনাসহ এলাকায় ব্যাপক বিক্ষোভ মিছিল করেছে।
এ ব্যাপারে বড়াইগ্রাম থানার ওসি দীলিপ কুমার দাস জানান, বিষয়টি শুনেছি। তবে এখন পর্যন্ত কেউ থানায় এসে অভিেযাগ দায়ের করেনি।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published.