যুবক অন্তরের মরদেহ পড়ে ছিল মাদরাসার বারান্দায়

নাটোর অফিস॥
নাটোরের গুরুদাসপুরে একটি মাদরাসার বারান্দায় পড়ে ছিল অন্তর (২০) নামে এক যুবকের মরদেহ। শনিবার রাত ১১টার সময় উপজেলার ধারাবারিষা ইউনিয়নের নয়াবাজার উদবারিয়া দাখিল মাদরাস অন্তরের মরদেহটি দেখতে পায় স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে তাকে শাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।
গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল মতিন মরদেহ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মরদেহটি চাটমোহর থানার মুলগ্রাম ইউনিয়নের বামনগ্রাম গ্রামের ছবের আলীর ছেলে অন্তরের। তার বয়স আনুমানিক ২০ বছর। রাতেই মরদেহের ছবি তুলে বাংলাদেশের প্রতিটি থানায় প্রেরণ করা হয় এবং প্রতিটি থানার বিট অফিসারের কাছে ছবি পৌছানো হয়। বিভিন্ন এলাকায় খোঁজাখুঁজি করতে থাকলে চাটমোহর থানার মুলগ্রাম ইউনিয়নের দায়িত্বরত বিট অফিসার ছবি দেখিয়ে পরিচয় জানার চেষ্টা করতে থাকলে বামনগ্রাম এলাকার মোঃ আতিক নামের এক ব্যক্তি ছবিটির যুবকের পরিচয় শনাক্ত করে। শনাক্তকারী ব্যক্তি নিহতের সম্পর্কে খালু হয়। নিহত অন্তর স্থায়ী ভাবে কোন কাজ করতো না। কখনও জুট মিলে কাজ করতো কখনও বা রাজমিস্ত্রীর কাজ । তবে কিভাবে কোন কারনে নয়াবাজার এলাকায় আসলো বা তাকে কারা নিয়ে এসে হত্যা করলো সে বিষয়ে তদন্ত চলছে। তদন্তের পরে মুল ঘটনা জানা যাবে।

Spread the love
  • 42
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    42
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published.