নাটোরের ১৪ গীর্জায় বড়দিনের উৎসব পালন করা হচ্ছে

নাটোর অফিস ॥
নাটোরে খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের ধর্মীয় উৎসব বড়দিন মহাসমারোহে পালন করা হচ্ছে। প্রথম প্রহরে ধর্মীয় আচার মেনে গীর্জা গুলোতে ভাব গম্ভীর্যের মাধ্যেমে শুরু হয় আনুষ্ঠানিকতা। খ্রিস্টধর্মের প্রবর্তক যিশুখ্রিষ্ট এই দিনে (২৫ ডিসেম্বর) বেথলেহেমে জন্মগ্রহণ করেন বলেই তাঁর অনুসারী-খ্রিস্টধর্মাবলম্বীরা এ দিনটিকে ‘শুভ বড়দিন’ হিসেবে উদযাপন করে থাকে। খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের মানুষরা বিশ্বাস করেন, সৃষ্টি-কর্তার মহিমা প্রচারের মাধ্যমে মানবজাতিকে সত্য ও ন্যায়ের পথে পরিচালিত করতেই প্রভু যিশুর পৃথিবীতে আগমন ঘটেছিল। বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশের খ্রিস্টধর্মানুসারীরাও আজ শনিবার যথাযথ ধর্মীয় ভাবগাম্ভির্য্য ও আচারাদি, আনন্দ-উৎসব এবং প্রার্থনার মধ্যদিয়ে ‘শুভ বড়দিন’ উদযাপন করছেন।
বড়াইগ্রামের বনপাড়া প্যারিস কাউন্সিলের (পালকীয় পরিষদ) সাধারন সম্পাদক শান্ত পালমা জানান, জেলায় এবার ১৪টি গীর্জায় (উপাসনালয়) বড়দিনের উৎসব পালন করা হচ্ছে। বড়াইগ্রামের ৬টি,সিংড়ায় ৩টি,নাটোর ৩টি ও লালপুরে ২টি গীর্জায় বড়দিনের উৎসব পালন করছেন খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের মানুষ।
এদিকে বড়দিনকে কেন্দ্র করে গীর্জা গুলোর বাইরে ভিতরে করা হয়েছে আলোক সজ্জা। উৎসব প্রানবন্ত করতে উপসনালয় গুলোতে সংগীত, যিশুর জন্মদৃশ্য প্রদর্শন করা হয়েছে। এছাড়া বড়দিনকে নির্বিঘœ করতে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে নেয়া কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা।
অপরদিকে খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের এই ধর্মীয় উৎসব বড়দিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সংসদ সদস্য অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস, সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল,জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ,পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা, নাটোর পৌর মেয়র উমা চৌধুরী জলি,বনপাড়া পৌর মেয়র এ কে এম জাকির জাকির হোসেনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ।

Spread the love
  • 32
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    32
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *