এমপি শিমুলের বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশনে নাটোরে প্রতিবাদের ঝড়

নাটোর অফিস ॥
নাটোর -২ আসনের পর পর দুইবার নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম শিমুলের বিরুদ্ধে দু’টি গণমাধ্যমে “জান্নাতি প্যালেস” শীর্ষক সংবাদ পরিবেশন ও প্রচারিত হওয়ায় প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। গত ২৮ মে রাতে বেসরকারী টিভি চ্যানেল টোয়েন্টিফোরে সার্চ লাইট অনুষ্ঠানে “জান্নাতি প্যালেস” শীর্ষক প্রতিবেদনটি প্রচারিত এবং পরদিন দৈনিক সমকালে ‘স্ত্রীর নামে কানাডায় বাড়ি কিনেছেন এমপি শিমুল” এই শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হলে আলোচনা ও সমালোচনার ঝড় ওঠে। ক্ষুদ্ধ হয় দলের স্থানীয় নেতা-কর্মীরা। শরু হয় সামাজিক গণমাধ্যমে প্রতিবাদের ঝড়। প্রতিবাদ জানানো হয় জেলা,উপজেলা,পৌর আওয়ামীলীগসহ অংগ ও সহযোগী সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানো হয়। নেতৃবৃন্দের অনেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। তারা এই প্রতিবেদনকে অনৈতিক অপপ্রচার ও অপরাজনৈতিক তৎপরতা এবং হলুদ সাংবাদিকতার বর্হিপ্রকাশ বলে দাবি করেন। প্রতিশ্রুতিমীল সফল নেতৃত্বকে প্রশ্নবিদ্ধ সহ সমাজে হেয় করতে উদ্দেশ্যে প্রণোদিত হয়ে এবং এক শ্রেণীর স্বার্থান্বেষী মহল যোগসাজস-ও ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়ে শফিকুল ইসলাম শিমুল ও তার সহধর্মীনি’র বিরুদ্ধে বানোয়াট কাহিনী সাজিয়ে এই মিত্যা সংবাদ প্রচার করা হয়েছে। সে ক্ষেত্রে প্রতিবেদক আব্দুল্লাহ আল ইমরান নিজেকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন। নেতৃবৃন্দ হুশিয়ারী করে বলেছেন ষড়যন্ত্রকারীসহ প্রতিবেদককে হলুদ সাংবাদিকতার দায়ে জনতার মুখোমুখি করে তাদের বিচার দাবী করেন।
জেলা আওয়ামীলীগ দপ্তর সম্পাদক দিলীপ কুমার দাস তার আইডিতে লিখেছেন, নাটোর জেলা আওয়ামীলীগের বিপ্লবী সাধারণ সম্পাদক প্রতিশ্রুতিশীল সফল নেতৃত্ব সদর ও নলডাঙ্গা আসনের সংসদ সদস্য উদীয়মান তরুন জননেতা আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম শিমুল এবং তার সহধর্মীনির নামে বেসরকারী টিভি চ্যানেল ২৪ এ মিথ্যা,ভিত্তিহীন প্রতিবেদন তৈরি করে তা প্রচার করা হয়েছে। এতে নাটোর জেলা, পৌর আওয়ামীলীগ এবং সকল অংগ ও সহযোগীসংগঠনের পক্ষ থেকে তীব্র প্রতিবাদ এবং নিন্দা জানাচ্ছি। রাজনীতিতে প্রতিযোগীতা থাকবে কিন্তু প্রতিহিংসা নয়, লক্ষ্য করেছি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পুর্বে দলীয় কিছু নেতৃবৃন্দ দলের শৃংখলা ও গঠনতন্ত্র ভঙ্গ করে শিমুলের বিরুদ্ধে অনৈতিক অপপ্রচারে লিপ্ত হয়। আমরা দলীয়ভাবে এই অপরাজনৈতিক তৎপরতা রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করে জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়ন দর্শন রূপকল্প ২০২১-৪১ শিমুল এমপির নেতৃত্বে তার নির্বাচনী এলাকা নাটোর সদর ও নলডাঙা উপজেলায় সফলভাবে বাস্তবায়নে সক্ষম হই। আগামী সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে একই চক্র আবারও শিমুল এমপির বিরুদ্ধে অপরাজনীতির নীল নকশা ঢাকার একটি পাওয়ারফুল বাড়িতে বসে করেছেন বলে আমরা মনে করি। শিমুল এমপির লাখো কর্মী সমর্থক এই অপতৎপরতা রুখে দিবে। উন্নয়নরতœ প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার আস্থাভাজন শিমুল ভাই, বিএনপি-জামাত ও জংগীবাদ দমনে সফল, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ দমনে, মাদক ব্যবসা বন্ধে নাটোর জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের সার্বিক সহযোগীতায় সফলকাম হন। উন্নয়ন বাস্তবায়নে ও গত দুইবছর যাবত মহামারী করোনাভআইরাস (কোভিড-১৯)এর সময় কর্মহীন ও হতদরিদ্র মানুষের মাঝে সরকারী খাদ্যদ্রব্য সহায়তার পাশাপাশি নিজস্ব অর্থায়নে সেই সকল অনাহারী মানুষের মাঝে ঘরে ঘরে খাবার পৌছে দেন তিনি নিজে উপস্থিাত থেকে। তিনি করোনা যোদ্ধা হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন নাটোরবাসীর কাছে।জনপ্রিয় নেতার বিরুদ্ধে এই মিথ্যা অপপ্রচার বন্ধের দাবী জানিয়ে শিমুল এমপির উন্নয়ন ও সফল রাজনীতির সংগে ঐক্যবদ্ধ থেকে জননেত্রী শেখ হাসিনা ও শিমুল এমপির হাতকে শক্তিশালী করার আহবান জানান তিনি।
জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম মাসুম লিখেছেন, নাটোরে আওয়ামী লীগের মুষ্টিমেয় কিছু নেতার সাথে বিএনপি, জামাতের আঁতাতের বিষয়টি কারোরই অজানা নয়। ইতিপূর্বে অসংখ্যবার গণমানুষের নেতা আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম শিমুল এমপির বিরুদ্ধে নানা ধরনের অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র রচনা করেছিলেন তারা। এমনকি প্রাণনাশের উদ্দেশ্যে একাধিকবার হামলার শিকারও হয়েছেন তিনি। তবে আল্লাহ পাকের অশেষ রহমতে তিনি সকল ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচারের বেড়াজাল ছিন্ন করে এগিয়ে যাচ্ছেন স্বমহিমায়। সংসদ সদস্য হিসেবে যেমন নাটোর-নলডাঙ্গায় ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড একের পর এক সফলভাবে সম্পন্ন করছেন। তেমনিভাবে নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দল ও পরিচালনা করছেন অত্যন্ত দক্ষতার সাথে। পাশাপাশি বিরোধী অপশক্তি নাটোর থেকে সমূলে নির্মুল করেছেন একক নেতৃত্বে। তার এই পথচলা কখনোই মসৃণ ছিলো না। প্রতিটি পদে পদে তিনি নিজ দলের কিছু আদর্শ বিচ্যুত নেতা ও রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছেন। ষড়যন্ত্রকারীদের শুধু একটা কথাই বলবো- শিমুল ভাই উড়ে এসে জুড়ে বসা নেতা নয়, ছাত্রলীগের তৃনমুল পর্যায় থেকে বেড়ে ওঠা নেতৃত্ব। আশির দশকে শিমুল ভাইয়ের বাবা হাসান আলী সরদার ছিলেন একজন স্বনামধন্য ঠিকাদার।অর্থবিত্তের অভাব কখনোই এই পরিবারে ছিলো না। প্রবীণ যেকোনো ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসা করলেই যার প্রমান পাওয়া যাবে। শুধুমাত্র আমাদের গ্রাম বড় হরিশপুরেই উনাদের যা সম্পত্তি ছিলো তা বিক্রির টাকা দিয়ে ভাইয়ের বাড়ির মতো এমন একাধিক বাড়ি নির্মান করা সম্ভব। সম্ভ্রান্ত পরিবারের সন্তান আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম শিমুল, রাজনীতি করেন সাধারণ মানুষকে দেবার জন্য, উপার্জন করার জন্য নয়। লক্ষ মানুষের দোয়া ও ভালবাসা আছে শিমুল ভাইয়ের ওপর। অর্র্থের বিনিময়ে সাংবাদিককে কিনে নিয়ে মনগড়া এইসব প্রতিবেদনে তার কোনো ক্ষতি হবে না ইনশাআল্লাহ।
মারুফ আরাবিয়া নামে একজন লিখেছেন, গুটি কয়েক জনবিচ্ছিন্ন হলুদ মিডিয়ার অর্থের বিনিময়ে মনগড়া ষড়যন্ত্র মূলক ভিত্তিহীন নিউজ সম্পর্কে দেশের মানুষ খুব ভালো ভাবেই অবগত। তাই এই প্রসঙ্গে আর কিছু বলতে চাইনা, তবে আমার একটা কথা আছে- আমাদের সফল সংসদ সদস্য জননেতা আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম শিমুল এমপি মহোদয়ের সহধর্মিণী একজন নারী, তিনি মায়ের জাত। তিনি তার বাড়ির ময়লা পরিস্কার করছেন আর সেই ময়লা পরিস্কার করার ভিডিও গোপনে ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করার মাধ্যমে যেভাবে আমাদের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম শিমুল এমপি মহোদয়ের সহধর্মিণী সুমি চাচীর সন্মান হানি করা হয়েছে আমি ব্যাক্তিগত ভাবে সেই সাংবাদিকের বিচার দাবি করছি।
মোস্তাফিজুর রহমান সেন্টু নামে অপর একজন লিখেছেন, বিগত এক যুগে এমপি মন্ত্রী হয়ে ডানে বামে ফকির হতে হাজার কোটি টাকার মালিকদের বাদ দিয়ে হঠাৎ শফিকুল ইসলাম শিমুল এমপির বাড়ির দিকে নজর পড়লো কেন। যিনি জন্মসূত্রে সম্পদশালী পরিবারে জন্ম নিয়েছেন। তার এরকম ১০টা বাড়ি থাকা স্বাভাবিক। নাটোরের মানুষ শান্তিপূর্ণভাবে জীবন যাপন করছেন এটা অনেকের সহ্য হচ্ছে না। আর শিমুল ভাই বিশ্বাস করে অনেককে নেতা বানিয়েছেন যার মধ্যে কয়েকটি খন্দকার মোশতাক রয়েছে তাই দোষ শিমুল ভাইয়ের উপরই বর্তায়। এসব খন্দকার মোশতাকদের আগামীতে লাথি দিয়ে বের করে দেওয়া সময়ের দাবি। কেননা বেঈমানের চেয়ে শত্রুও ভালো। সাংবাদিকদের ফালতু নিউজে নাটোরের সচেতন মানুষ থুথু নিক্ষেপ করে। তিনি বলেন, শফিকুল ইসলাম শিমূল এমপি হঠাৎ করে ওঠে আসেনি বরং বিএনপি জামায়াতের সঙ্গে যুদ্ধের ময়দান থেকে ফিরে এসে বঙ্গবন্ধু কন্যার নির্দেশ পালন করছেন।
এদিকে এই সংবাদ প্রকাশের পর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও নাটোর জজ কোর্টের পিপি সিরাজুল ইসলাম তার মন্তব্যে বলেন, সংবাদটি দেখার পর আমি এ ধরনরে হীন র্কমকান্ডরে তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানোর ভাষাও হারিয়ে ফেলেছি। এ ধরনের নোংরা হলুদ সাংবাদিকতার দিকে সর্তকতামূলক দৃষ্টি রাখতে সুধি মহলের প্রতি অনুরোধ জানাই।
জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও নাটোর পৌরসভার মেয়র ঊমা চৌধূরী জলি বলেন, অনুমতি ছাড়া একজনের ভিডিও করে প্রচার করা আইনত মারাত্মক দন্ডনীয় অপরাধ। এ ধরনের সংবাদ পরিবেশনে দলীয় ২/৪ জন নেতা র্কমীর ষড়যন্ত্রমূলক মন্তব্যে বর্তমানে আমি খুবই হতাশ। উদ্দেশ্যে প্রণোদিত এ সংবাদের প্রতিবিদেকসহ জড়িত সকলের বিরুদ্ধে সুষ্ঠ বিচারের দাবী জানাচ্ছি।
নাটোর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আনোয়ার হোসেন আনু ও সাধারন সম্পাদক মোঃ জহুরুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার আস্থাাভাজন, জন্মসূত্রে শতকোটি টাকার পিতার সন্তান, নাটোরের গণমানুষের নেতা নাটোর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম শিমুল এমপিকে ব্যক্তিগত ও সামাজিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য একটি কুচক্রী মহল কুৎসা ছড়াচ্ছে। তাকে জড়িয়ে বেসরকারী টিভি চ্যানেল ২৪ সম্প্রতি যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। রাজনীতিবিদ হিসেবে তার দীর্ঘদিনের সুনাম ক্ষুন্ন করায় সংবাদটির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
নলডাঙ্গা উপজেলার ব্রক্ষ্মপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক বলেন, নলডাঙ্গার উন্নয়নের মহাপুরুষ জননেত্রী শেখ হাসিনার আস্থাাভাজন আলহাজ্ব শফিকুল ইসলাম শিমুল এমপি ভাইকে নিয়ে কুৎসা রটানো হচ্ছে। আমি একজন আওয়ামীলীগের কর্মী হিসেবে এ ষড়যন্ত্রের গভীরতা মাপতে পেরেছি। কারণ শিমুল ভাই এমপি থাকলে বিএনপি ও জামায়াতকে প্রতিস্থাাপন করা যাবে না। এছাড়া তারা যে উদ্দেশ্য নিয়ে রাজনীতি করে সে উদ্দেশ্য হাসিল হবে না। কারণ তারা জনবিচ্ছিন্ন, দেশের মানুষের প্রতি তাদের কোনো ভালোবাসা নেই, তার প্রমাণ করোনাকালীন, বন্যাকালীন কোন মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে এমন নজির তাদের নেই। সুতরাং তাদের উদ্দেশ্য কোনদিনই সফল হবে না শেখ হাসিনা যতদিন জীবিত আছে।
এই সংবাদ প্রচার ও প্রকাশের পর প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছেন পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক হাবিবুর রহমান চুন্নু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ যুগ্ম আহবায়ক আহমেদ সেলিম,নলডাঙ্গা উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুস সুকুর, সাধারন সম্পাদক মুসফিকুর রহমান, সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদ সদস্য রঈস উদ্দিন রুবেল, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক তৌহিদুর রহমান লিটন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আলিম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শিরিন আক্তার, নলডাঙ্গা পৌর আওয়ামীলীগ সভাপতি শরিফুল ইসলাম পিয়াস, সাধারন সম্পাদক ও পৌর মেয়র মনিরুজ্জামান মনিরসহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

এদিকে নাটোর জেলা আওয়ামীলীলীগ সাধারন সম্পাদক ও সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল অভিযোগ করে বলেন, দলের মধ্যে কতিপয় নেতার যোগ সাজসে ষড়যন্ত্রমুলক এবং পরিকল্পিত ভাবে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে আমার ও আমার স্ত্রীর বিরুদ্ধে এমন মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। আমি এই মিথ্যা সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। একই সঙ্গে ষড়যন্ত্রকারীদের শাস্তি দাবী করছি। তিনি বলেন, এটা তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কিছু নয়। নাটোরের সু-সংগঠিত আওয়ামীলীগকে নিশ্চিহ্ন করতে দলের ভিতর ও বাহিরের কিছু চক্রান্তকারী এই ধরনের অপতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, আমার অর্থ সম্পদ বৈধ পথে অর্জন করা। অথচ মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর এবং মনগড়া তথ্য দিয়ে সংবাদ পরিবেশন করে তারা আমাকে নাটোরবাসীর কাছে হেয় প্রতিপন্ন করতে চায়। বিষয়টি দলের হাইকমান্ডকে জানানো হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকেও বিষয়টি অবহিত করে সাংগঠনিক ব্যবস্থা ও আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবী করবেন তিনি।

 

 

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *