ডিজিটাল বাংলাদেশের সুফল পাচ্ছেন জনগন- পলক

নাটোর অফিস ॥
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বৈশ্বিক মহামারী করোনা সংক্রমণের এই ক্রান্তিকালে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তার শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিচার, প্রশাসনিক সেবাসহ কোন কাজই থেমে থাকেনি। ডিজিটাল বাংলাদেশের সুফল পাচ্ছেন দেশের জনগন। প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার দেশের প্রতিটি মানুষকে ভাল রাখার জন্য ভ্যাকসিন ক্রয় করার জন্য বিভিন্ন দেশের সাথে চুক্তি করছে। তাছাড়া এই করোনাকালীন সময়ে যাতে কোন কাজ যেন থেমে না থাকে, সেজন্য প্রযুক্তির সহায়তা সকল কার্যক্রম চালু রাখা হয়েছে। পলক বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা মানবতার মা। তিনি সকল সময়ে সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের চাহিদা সম্পর্কে সচেতন। বিগত সময়ে বন্যা এবং ১৩ মাস ধরে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতিতে তিনি নিরলসভাবে অসহায় মানুষের পাশে মানবিক সহায়তা পৌঁছে দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর অদম্য দূরদর্শী নেতৃত্বের কারনে দেশের যে কোন সংকট মোকাবেলা সক্ষমতা বর্তমান সরকারের আছে।
প্রতিমন্ত্রী শনিবার সিংড়া উপজেলার দমদমা পাইলট স্কুল এন্ড কলেজ প্রাঙ্গনে সিংড়া পৌরসভার কর্মহীন অসহায় পরিবারের মাঝে নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা প্রদানকালে এ কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী পরে সিংড়া উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন পরিষদের সাথে সংযুক্ত হয়ে উপকারভোগীদের মাঝে একই সহায়তা বিতরণ কার্যক্রমরও উদ্বোধন করেন। এসময় প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, অসহায় দরিদ্র মানুষদের টাকা বিতরণে কোন অনিয়ম সময় সহ্য করা হবে না। অনিয়ম বা দুর্ণীতি হলেই সেই এলাকার জনপ্রতিনিধির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পলক বলেন, করোনা সংক্রমণের এই সংকটকালে বিশ্বের অনেক উন্নত দেশে জীবনযাত্রা স্থবির হয়ে পড়েছে। কিন্তু আমাদের দেশে ডিজিটাল বাংলাদেশের প্লাটফর্ম নির্মাণ করার ফলে প্রায় সকল পেশাজীবী মানুষ কর্মে নিয়োজিত থেকেছেন। এক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব প্রতিবন্ধক হয়ে ওঠেনি। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ থাকলেও দেশের সাড়ে চার কোটি শিক্ষার্থী অনলাইনে পড়াশুনা করছে। ই-নথি ব্যবহার করে সকল সরকারী দপ্তরে নাগরিক সেবা চালু রাখতে প্রশাসনিক কার্যক্রম সচল আছে। আদালতে ভার্চুয়াল কোর্টের মাধ্যমে প্রায় এক লাখ মানুষের জামিন শুনানী করা সম্ভব হয়েছে। টেলিমেডিসিন স্বাস্থ্য সেবা চালুর ফলে সরকারী হাসপাতালগুলোতে তৃণমূলের মানুষেরা অনায়াসে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ পাচ্ছেন।
সিংড়া উপজেলার একটি পৌরসভা এবং ১২টি ইউনিয়নের মোট ২৪ হাজার ৫১০টি পরিবারের নিকট পরিবারপ্রতি সাড়ে চারশ’ টাকা হারে প্রায় এক কোটি ১১ লাখ টাকার মানবিক সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে।
সিংড়া পৌরসভার মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিংড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম সামিরুল ইসলাম, সিংড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট শেখ ওহিদুর রহমান প্রমুখ।
প্রতিমন্ত্রী পলক পরে সিংড়া উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে অনলাইনে উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন পরিষদের সাথে সংযুক্ত হয়ে উপকারভোগীদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধনকালে কোভিড-১৯ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে সহায়তা বিতরণের নির্দেশনা প্রদান করেন। এ সময় কলম ইউনিয়ন পরিষদ থেকে অনলাইনে সংযুক্ত হন উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম সামিরুল ইসলাম।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *