এখন শান্তির ঘুম পারবেন !

নাটোর অফিস ॥
শীতে আর কষ্ট পাবেন না ষাটোর্ধ বয়সী আতেজান বেওয়া। রাতে এখন শান্তির ঘুম পাড়তে পারবেন। কনকনে শীত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য মেম্বার চেয়ারম্যানসহ টাকাওয়া মানুষের কাছে ছুটে গেছেন। কম্বল দিবেন বলে বলেছিলেন কেউ কেউ। কিন্তু কিছুই পাইনি। আগুন জ্বেলে রাত কাটাতে হয়েছে। বুধবার সকালে কয়েকজন লোক বাড়িতে এসে আমাকে একটা লেপ দিয়ে যাওয়ায় খুশী হয়েছি। কখনো কল্পনাও করিনি লেপ পাব। মানুষের বাড়িতে বাড়িতে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে থাকেন নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার বামন গ্রামের বিধবা ৬৫ বছরে পা দেওয়া আতেজান বেওয়া। লেপ পেয়ে মুখে প্রাণ খোলা হাসি দিয়ে বললেন এখন শীতে আর কষ্ট পেতে হবেনা তাকে। যারা লেপটা তাকে দিয়েছে তাদের দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া করেন।
উপজেলার এমন অসহায় দরিদ্র ও নি¤œ আয়ের শীতার্ত মানুষকে শীতবস্ত্র হিসেবে কভার সহ একটি করে লেপ বিতরণ করেছে “শীতের হাসি”নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী ও সামাজিক সংগঠন। বাড়ি বাড়ি গিয়ে ছিন্নমুল অসহায় মানুষের হাতে তুলে দিচ্ছে লেপ ও একটি করে লেপের কাভার। আর মাঘ মাসের কনকনে শীতে লেপ পেয়ে লেপ উচ্ছাসিত শীতার্ত মানুষগুলো। নলডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন এই লেপ বিতরনের মধ্য দিয়ে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রাণি সম্পদ অফিসের ভেটেরিনারি সার্জন মোঃ রকিবুল হাসান সুজন, জেলা পরিষদ সদস্য রইস উদ্দিন রুবেল, সংগঠনের সভাপতি ও উদ্যোক্তা গনমাধ্যমকর্মী মোঃ মামুনুর রশীদ, সাংবাদিক সত্যজিৎ কুমার দেবনাথ, রাশেদ আলম, তুষার হোসেন প্রমুখ।
“শীতের হাসি” সংগঠনের সভাপতি ও উদ্যোক্তা গনমাধ্যমকর্মী মোঃ মামুনুর রশীদ জানান, গত ২০১৯ সালে এই সংগঠনের যাত্রা শুরু হয়। একই সঙ্গে গত বছর নাটোর সদর, নলডাঙ্গা ও সিংড়া উপজেলার ১০০টি পরিবারকে একটি করে লেপ ও লেপের কাভার দেয়া হয়েছে। সংগঠনের সদস্য ও স্থানীয় এবং বিভিন্ন পর্যায়ের ডনারদের আর্থিক সহযোগিতায় লেপ প্রস্তুত করার পর তা ছিন্নমুল পরিবার, যাদের ঘরে শীত নিবারনের লেপ নেই, তাদের খুজে বের করে বাড়ি বাড়ি গিয়ে সকালে অথবা রাতে গিয়ে এসব লেপ বিতরন করা হয়। এবারও প্রায় ১০০ জনকে লেপ প্রদান করা হবে। তিনি বলেন, শীতার্ত মানুষের মুখে হাসি ফোটানোসহ শান্তির ঘুম পাড়াতেই প্রতিবছর পাশে থাকবে এই সংগঠন। শুধু শীত বস্ত্র বিতরন নয়, পাশাপাশি সামাজিক বিভিন্ন উন্নয়ন কাজসহ জনকল্যান মুলক বিভিন্ন কাজেও অংশ গ্রহণ ও বাস্তবায়নে কাজ করে এই সংগঠন।

Spread the love
  • 23
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    23
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *