সিংড়ায় ছাগল চুরির মিথ্যা অভিযোগ তুলে ২ কিশোরকে গাছের সাথে বেধে পেটালো দুই মাদক ব্যবসায়ী

নাটোর অফিস ॥
নাটোরের সিংড়ায় ছাগল চুরির অভিযোগ তুলে সাগর (১৬) ও অন্তর (১৭) নামে দুই কিশোরকে পিটিয়ে তাদের কাছে থাকা টাকা ও মোবাইল ফোন কেড়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে দুই যুবকের বিরুদ্ধে। ওই নির্যাতনের পর থেকে দুই কিশোরের কোন খোঁজ পাচ্ছেননা তাদের পরিবার। রোববার দুপুরে উপজেলার বিলদহর বাজারে এই নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। অভিযুক্ত দুই যুবক স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী মোস্তফা সরদার ও সোহেল হোসেন বিলদহর বাজারে দুই কিশোরকে গাছের সাথে বেঁধে প্রকাশ্যে নির্যাতন করে। এসময় স্থানীয় যুবক রিপন ও তার মা প্রতিবাদ জানালে তাদেরও পিটুনী দেয় ওই দুই মাদক ব্যবসায়ী। ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পরলে মোস্তফা সরদার ও সোহেল হোসেন এলাকা থেকে পালিয়ে যায়।অভিযুক্ত মোস্তফা সরদার বিলদহর গ্রামের মৃত আজাহার আলীর ছেলে ও সোহেল হোসেন কালিনগর গ্রামের মৃত আলতাব হোসেনের ছেলে। নির্যাতিত দুই কিশোর পার্শ্ববর্তী গুরুদাসপুর উপজেলার হরদমা গ্রামের বাসিন্দা। সাগর ওই গ্রামের দিনমজুর আসাদের ছেলে এবং অন্তর শাহিন ইসলামের ছেলে। দু’জনই স্কুল ছাত্র।
সাগরের মা ও স্থানীয়রা জানান, রোববার দুপুরে সাগর ও অন্তর কাঁচা বাজার করতে বিলদহর বাজারে যায়। পথে বিলদহর গ্রামের মৃত আজাহার আলীর ছেলে স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী মোস্তফা ও কালিনগর গ্রামের মৃত আলতাব হোসেনের ছেলে সোহেল তাদের ধরে মারপিট করে এবং তাদের কাছে থাকা টাকা ও মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়। এ সময় তাদের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে বলা হয় তারা এলাকার একটি ছাগল চুরি করেছে তাই তাদের শাস্তি দেওয়া হচ্ছে। খবর পেয়ে সাগরের মা সেখানে ছুটে গিয়ে তার সন্তানকে খুজে পাননি। সাগরের মা বলেন,তার ছেলেকে বিলদহর হাটে পাঠিয়েছিলেন বাজার করার জন্য। সে কখনও ছাগল চুরি করতে পারেনা। তিনি তার ছেলেকে খুজে পাচ্ছেননা বলে জানান। এঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
এলাকাবাসী জানায়, মোস্তফা সরদার সিএনজি স্ট্যান্ড থেকে চাঁদা উত্তোলন করে। সোহেল মাদক ব্যবসায়ী। এলাকার সকলেই তাদের মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারী হিসেবে জানে। সেহেলের বিরুদ্ধে মাদকের মামলা রয়েছে জানান তারা।
নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা বলেন, তিনি মারপিটের ঘটনাটি শুনেছেন। ঘটনার খবর পেয়ে এলাকায় পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্তদের ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে।

Spread the love
  • 13
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    13
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *