নাটোরে এবার সাড়ে তিনশ’ মন্ডপে পুজা উৎসব হলেও বিসর্জন শোভাযাত্রা হবেনা

নাটোর অফিস॥
করোনাকালীন পরিস্থিতিতে আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজায় নাটোর জেলায় এবার ৩৫০টি পূজা মন্ডপে সার্বিক নিরাপত্তা, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি, স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে উৎসব উদযাপন করা হবে। তবে এবার কোন বিসর্জন শোভাযাত্রা ও আরতী প্রতিযোগিতা হবে না। প্রতিটি পূজা মন্ডপে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজারসহ হাত ধোয়ার ব্যবস্থা রাখা হবে । এছাড়া প্রতিটি পূজা মন্ডপে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দ্বারা নিরাপত্তা বলয়ে রাখা হবে।
আজ বুধবার জেলা প্রশাসনের আয়োজনে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে পূজা মন্ডপের সার্বিক নিরাপত্তা, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি, স্বাস্থ্যবিধি মেনে উৎসব উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতিমুলক সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।সভায় বলা হয় আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজায় ধর্ম মন্ত্রনালয় এবং কেন্দ্রিয় পুজা উদযাপন পরিষদের ২৬টি নির্দেশনা মেনে এবার উৎসব পালন করা হবে।
জেলা প্রশাসক মোঃ শাহরিয়ােজর সভাপতিত্বে সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হেডকোয়াটার) মীর আসাদুজ্জামান,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক)নাদিম সারোয়ার , জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) উপ-পরিচালক (ডিডি) মোঃ ইকবাল হোসেন, পৌর মেয়র ও জেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি উমা চৌধুরী জলি, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহাঙ্গীর আলম, সিংড়া ইউএনও নাসিরন বানু,গুরুদাসপুর ইউএনও মোঃ তমাল হোসেন,বাগাতিপাড়া ইউএনও প্রিয়াংকা দেবী পাল,নলডাঙ্গা ইউএনও আব্দুল্লাহ আল মামুন, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ , হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ সভাপতি চিত্তরঞ্জন সাহা, সেক্রেটারি সুব্রত সরকার,জেলা পুজা ইদযাপন পরিষদের সেক্রেটারি খগেন্দ্রনাথ রায়,উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি বিজয় কুমার ,সেক্রেটারি প্রদীপ সরকার, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর অলোক মৈত্র সহ নাটোর জেলা -উপজেলার সকল পুজা উদযাপন পরিষদ নেতৃবৃন্দ সহ সকল সরকারী উদৃতন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় জানানো হয় এবার জেলায় ৩৫০ টি মন্ডপে পূজা উদযাপন করা হবে। এরমধ্যে সদর উপজেলায় ৬৮ টি, সিংড়ায় ৯৫টি, গুরুদাসপুরে ২৯টি, বড়াইগ্রামে ৪৭ টি, লালপুরে ৩৮ টি, বাগাতিপাড়ায় ২৪ টি এবং নলডাঙ্গা উপজেলায় ৪৯টি। আগামী ২২ অক্টোবর থেকে পূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে এবং ২৬ অক্টোবর বিসর্জনের মধ্যে দিয়ে পূজা উৎসব শেষ হবে। এবার প্রতিটি মন্ডপে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও দর্শনার্থী ও পূজা উদযাপনকারীদের জন্য হাত ধোয়ার বিশেষ ব্যবস্থা রাখা হবে। প্রতিটি ধর্মীয় ভক্তিমূলক সঙ্গীত ছাড়া অন্য কোন গান বা সংগীত করা যাবে না এবং প্রয়োজনের অতিরিক্ত আলোকসজ্জা করা যাবে না বলে জেলা প্রশাসন থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়। এছাড়া প্রতিটি পূজা মন্ডপে প্রতিবছরের ন্যায় পুলিশ, আনসার সদস্য, স্বেচ্ছাসেবী ও সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন রাখা হবে। বন্যার কারণে সিংড়া ও নলডাঙ্গা উপজেলার প্রতিটি মন্ডপে সরকারি ৫০০ কেজি করে চাল সহায়তার পাশাপাশি জেলা প্রশাসকের নিজস্ব তহবিল থেকে অর্থ সহায়তা দেওয়া হবে । এজন্য জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকল প্রস্তুত সম্পন্ন করা হয়েছে। সভা শেষে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকলকে শারদীয় দূর্গাপূজার অগ্রিম শুভেচ্ছা জানানো হয়।

Spread the love
  • 62
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    62
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *